বিশ্বের দরবারে ‘রাস্তার মাস্টার’ দীপ নারায়ণ নায়েক In top 10 Finalist of The Global Teacher Prize 2023

বিশ্বের দরবারে ‘রাস্তার মাস্টার’ দীপ নারায়ণ নায়েক In top 10 Finalist of  The Global Teacher Prize 2023 

মনে পড়ে সেই স্কুল জীবনের কোন এক শীতের বেলায় পড়াশোনার সঙ্গে সঙ্গে গায়ে রোদ লাগিয়ে নেবার জন্য মাস্টারমশাইরা বলতেন আয় স্কুলের মাঠেই আজ ক্লাস করি। আর আমরা সবাই জানি কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের শান্তিনিকেতনের কথা যেখানে তো গাছের নিচেই পড়াশোনা হয়।

আর তারই প্রতিচ্ছবি দেখতে পাবেন পশ্চিমবঙ্গের জামুরিয়ায়, দীপ নারায়ণ নায়েক নামে এক শিক্ষক অক্লান্ত পরিশ্রম করে চালিয়ে যাচ্ছেন রাস্তার মাঝেই স্কুল। রাস্তার আশপাশের নিকানো দেয়ালের উপরেই স্বরবর্ণ ব্যঞ্জনবর্ণ ইংরেজি আলফাবেট লিখে বা ব্ল্যাকবোর্ড এর মতো ব্যবহার করে ছাত্রদের দিচ্ছে শিক্ষা। বাড়ির বাইরে বেরোলে বাচ্চারা শুধু খেলবে না। ওখানে রাস্তার মাঝে দুপাশের দেয়ালেও স্বরবর্ণ ব্যঞ্জনবর্ণ লেখা দেখে শিক্ষা গ্রহণ করছে। পুরো গ্রাম হয়ে উঠেছে যেন পাঠশালা।

রাস্তার মাস্টার দীপ নারায়ণ নায়েকের মতে প্রত্যন্ত এই এলাকায় যে সমস্ত ছেলে মেয়েরা লেখাপড়া শিখতে আসছে তারা হলো প্রথম প্রজন্মের শিক্ষার্থী অর্থাৎ ওই বাচ্চাদের আগের প্রজন্ম কোনরকম ভাবেই লেখাপড়ার সঙ্গে যুক্ত না। সেই জন্য অনেক ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে হয়তো রাস্তার একদিকে বাচ্চা লেখাপড়া শিখছে অন্য প্রান্তেই তার বাবা-মা, দাদু-দিদারা লেখাপড়া শিখছে। নিজেদের মধ্যেই একটা গড়ে উঠেছে প্রতিযোগিতা, কে আগে লেখাপড়া শিখতে পারে।

THE STREET TEACHER DEEP NARAYAN DEB

আর দীপ নারায়ণ বাবু এই প্রচেষ্টা দেখে গ্রামের মানুষজন তাকে রাস্তার মাস্টার বলে থাকেন আর তাই মাস্টারমশাইয়ের পরিচিতি রাস্তার মাস্টার নামে চারিদিকে ছড়িয়ে পড়েছে।

দীপ নারায়ণ বাবু নিজের প্রচেষ্টায় ভ্রাম্যমান একটি গ্রন্থাগারের ও প্রচলন করেছেন যেটি অনেক রকম বই নিয়ে এলাকায় এলাকায় ঘুরে বেড়ায়। এবং যে কোন লোক তার পছন্দমত বই সংগ্রহ করে লেখাপড়া করতে পারে। অনেক ক্ষেত্রে আবার দেখা যায় ছাত্রদের অভিভাবকেরাও এই প্রচেষ্টার মধ্যে অংশগ্রহণ করে।

করোনা কালে যেখানে আমরা দেখেছি অনলাইন ক্লাসে ডিজিটাল ডিভাইসের দৌরাত্ম সেখানে জামুড়িয়ার বুকে খোলা আকাশের নিচে আর রাস্তার উপরেই চলেছিল পড়াশোনা। যেখানে মাটির বাড়ির নিকানো দেয়ালগুলি হয়েছিল ব্ল্যাক বোর্ড আর রাস্তার মধ্যেই চলতো পড়াশোনা। 

WhatsApp Channel Join Now
Telegram Group Join Now

নারায়ণ বাবু শৈশব কাটিয়েছেন বড়ই অর্থ কষ্টে, বাবা ওষুধের দোকানে কম বেতনে চাকরি করতেন। তাই অনেক কষ্টের মধ্যে লেখাপড়া শিখে তিনি হয়ে উঠেছেন আজ শিক্ষক। তিনি যেমন নিজের চোখে অনুভব করেছেন যে কতটা কষ্টের মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছে তাকে পড়াশোনা শেখার জন্য তাই তিনি শিক্ষার বিস্তারের জন্য এইরকম চিন্তাভাবনা নিয়ে এগিয়ে চলেছেন। আর ফলও মিলেছে হাতেনাতে।

আন্তর্জাতিক সংস্থা ইউনেস্কো প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরেও আয়োজন করেছে বিশ্বের সেরা শিক্ষকের প্রতিযোগিতা। আগামী ৮ ই নভেম্বর প্যারিসের জেনারেল অ্যাসেম্বলিতে অনুষ্ঠিত হবে এই অনুষ্ঠানটি বিশ্বের মোট ১৩০ টি দেশ থেকে তাপড় তাপড় শিক্ষক এবং শিক্ষাবিদরা এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য আবেদন করেছিলেন। সেখান থেকে ইউনেস্কো ১০ জন শিক্ষকের নির্বাচিত করেছেন আর তাদের মধ্যেই ঢুকে পড়েছেন জামুড়িয়ার রাস্তার মাস্টার দেব নারায়ন নায়ক মহাশয়।

শিক্ষাক্ষেত্রে অনবদ্য অবদানের জন্যই এই প্রতিযোগিতা। এ প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করবেন যে শিক্ষাবিদ বা শিক্ষক পুরস্কার হিসেবে তার হাতে তুলে দেয়া হবে ১ মিলিয়ন ডলার যা ৮ কোটি ৩২ লক্ষ টাকা ভারতীয় মুদ্রায়। রাস্তার মাস্টার এখন বিশ্বের দরবারে ১০ জন সেরা শিক্ষক ও শিক্ষা বিদের মধ্যে মনোনীত হয়েছেন। হয়তো আগামী দিনে তিনি কোন বিশেষ স্থানও অর্জন করতে পারেন ওই দশজনের মধ্যে।

CLASS OF RASTAR MASTER

ইউনেস্কো পরিচালিত বিশ্বের প্রথম ১০ জন শিক্ষকের তালিকায় আছে ভারতবর্ষের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের জামুড়িয়ার রাস্তার মাস্টার দীপ নারায়ণ নায়েক। 

যেখানে একটা সরকারের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় সুন্দর শিক্ষা ব্যবস্থা গঠন করা যায় না সেখানে একক একজন মাস্টারমশাইয়ের চেষ্টায় শিক্ষার আলোয় আলোকিত হচ্ছে বহু সংখ্যা মানুষ। জামুড়িয়ার মতো কোলিয়ার ি বেল্টে অত্যন্ত এলাকা যেখানে পিছিয়ে পড়া মানুষদেরই বসবাস বেশি সেই সব অত্যন্ত এলাকা এই সমস্ত মানুষদের প্রয়াস সত্যি নক্ষত্রের আবির্ভাবের মতই বলা যায়।

ভালো থাকুন নারায়ণ বাবু, ছড়িয়ে দিন আরো আরো শিক্ষার আলো। অগ্রিম শুভেচ্ছা রইল আমাদের পক্ষ থেকে। 

Leave a Comment

Enable Notifications OK No thanks